4th Week Assignment 2021Assigment

Class 6 Science (Beggan) 4th Week Assignment 2021

Welcome to Class 6 4th Week Assessment Syllabus and Solution Science. It is very important for students to prepare for the 4th-week science assessment. Because a standard and understandable assignment have to be prepared and submitted to the teacher within that time.

The class teacher will evaluate this assessment and give the number to the student and on the basis of this number the student will get the assessment of the next class lift. That’s why students will visit our website to get a standard and understandable assignment answer sheet which will help you a lot in creating a beautiful assignment.

More post: 4th Week Class 6 Craft & Art Answer 2021

Class 6 Assignment 4th Week Science (Beggan) Syllabus & Solutions

Students in Class Six are looking for solutions to the fourth subject science you do. We’ve linked science solutions to our website. Visit here and download the PDF file and collect it in the answer sheet.

Recommended for you:

4th Week Class 6 Science (Beggan)  Assignment Syllabus 2021

4th Week Assignment Syllabus All class 2021

4th Week Assignment Class 6 Science (Beggan) Answer 2021

তোমার পড়ার টেবিলের দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা একটি স্কেলের সাহায্যে পরিমাপ করে খাতায় লিখ।

১। পড়ার টেবিলের পৃষ্টের ক্ষেত্রফল নির্ণয় কর।

ঊত্তরঃ

এখানে,

টেবিলের দৈর্ঘ্য ১০০ সেন্টিমিটার,

টেবিলের প্রস্থ ৫০ সেন্টিমিটার

পড়ার টেবিলের পৃষ্ঠের ক্ষেত্রফল = দৈর্ঘ্য X প্রস্থ

( ১০০ X ৫০ ) বর্গ সেন্টিমিটার

৫০০০ বর্গ সেন্টিমিটার

৫০০০/(১০০)২ বর্গমিটার।

= ০.৫ বর্গমিটার

সুতরাং, পড়ার টেবিলের পৃষ্ঠের ক্ষেত্রফল = ০.৫ বর্গমিটার ।

২। এটি ঘরের কতটুকু জায়গা (আয়তন) দখল করেছে তা বের কর।

ঊত্তরঃ

এখানে,

টেবিলের দৈর্ঘ্য ১০০ সেন্টিমিটার,

প্রস্থ ৫০ সেন্টিমিটার এবং

উচ্চতা ৪০ সেন্টিমিটার

যতটুকু জায়গা আয়তন দখল করেছে তা হল- দৈর্ঘ্য X প্রস্থ X উচ্চতা

= (১০০ X ৫০ X ৪০) ঘন সেন্টিমিটার

= ২,০০,০০০ ঘন সেন্টিমিটার

সুতরাং, ২,০০,০০০ ঘন সেন্টিমিটার আয়তনের জায়গা দখল করেছে ।

৩। পড়ার টেবিল যে আয়তনের জায়গা দখন করে সে আয়তনে একটি পাত্র কত লিটার পানি ধরবে তা যোক্তিক কারনসহ ব্যাখ্যা কর।

ঊত্তরঃ

পড়ার টেবিল যে আয়তনের জায়গা দখন করে সে আয়তনে একটি পাত্র কত লিটার পানি ধরবে তা যোক্তিক কারনসহ ব্যাখ্যা কর।

২ নং হতে পাই,

টেবিলের আয়তন = ২,০০,০০০ ঘন সেন্টিমিটার

সিজিএস পদ্ধতিতে আয়তনের একক ঘন সেন্টিমিটার।

তরল পদার্থের আয়তন মাপা হয় লিটারে।

আমরা জানি,

১০০০ ঘন সেন্টিমিটার = ১ লিটার

১ ঘন সেন্টিমিটার = ( ১ / ১০০০ ) লিটার

২,০০,০০০ ঘন সেন্টিমিটার = ( ১ X ২০০০০০) / ১০০০ লিটার

= ২০০ লিটার।

সুতরাং, পড়ার টেবিল যে আয়তনের জায়গা দখল করে সে আয়তনের একটি পাত্রে ২০০ লিটার পানি ধরবে। যৌক্তিক কারন সহ ব্যাখ্যা করা হলো ।

ক) বিদ্যুৎ পরিবাহী ও অপরিবাহী পদার্থের নাম লিখ।

ঊত্তরঃ

বিদ্যুৎ পরিবাহী ও অপরিবাহী পদার্থের নাম

যে সকল পদার্থর মধ্য দিয়ে তড়িৎ প্রবাহ খুব সহজেই হয়, বিশেষ কোনো বাধার সম্মুখীন হয় না তাকে বিদ্যুৎ পরিবাহী পদার্থ বা সুপ্রিবাহী পদার্থ বলে । সাধারণত সব ধাতুই কম-বেশি ভালো বিদ্যুৎবাহী । উধাহারণে রূপা, তামা, অ্যালুমিনিয়াম বিশেষ উল্লেখযোগ্য । ধাতব পদার্থ ছাড়া মাটি, প্রাণীদেহ, কার্বন, কয়লা পরিবাহকের কাজ করে ।

বিদ্যুৎ পরিবাহী পদার্থের তালিকা
বিদ্যুৎ পরিবাহী পদার্থের তালিকা নিম্নরূপ –

রূপা (As)
তামা (Cu)
অ্যালুমিনিয়াম (Al)
সোনা (Ag)
টাংস্টেন (Tn)
দস্তা (Zn)
ক্যাডমিয়াম (Cd)
পিতল (Brass)
লোহা (Fe)
টিন (Sn)
নিকেল (Ni)
ইস্পাত (Steel)
জার্মান সিলভার (Alloy)
সীসা (Pb)
ম্যাঙ্গানীজ (Mn)

বিদ্যুৎ অপরিবাহী পদার্থ

যে সকল পদার্থের মধ্য দিয়ে তড়িৎপ্রবাহ সহজে চলাচল করতে পারে না, প্রবাহ পথে প্রচুর বাধার সম্মুখীন হয় তাকে বিদ্যুৎ অপরিবাহী পদার্থ বা কু-পরিবাহী পদার্থ বা অন্তরক বা ইন্সুলেটর বলে। অপরিবাহী পদার্থের মধ্যে তড়িৎপ্রবাহ তুলনামূলকভাবে খুব কম হয়, যাকে ব্যবহারিক ক্ষেত্রে উপেক্ষা করা চলে। শুষ্ক বায়ু, শুকনো কাপড়, কাচ,শুকনো কাঠ, রাবার, কাগজ, এবোনাইট, ব্যাকেলাইট ইত্যাদি অপরিবাহী পদার্থ অন্তরকের কাজ করে। মধ্যে কাঠ, কাগজ ও কাপড় ভিজে গেলে আবার পরিবাহকের কাজ করে।

বিদ্যুৎ অপরিবাহী পদার্থের তালিকা
বিদ্যুৎ অপরিবাহী পদার্থের তালিকা নিম্নরূপ –

অ্যাসবেসটস (Asbestos)
ব্যাকেলাইট (Bakelite
কাচ (Glass)
এবোনাইট (Ebonite)
গাট্টা পার্চ্চা (Gutta Percha)
মাইকা (Mica)
তেল অনুষিক্ত কাগজ (Oiled Paper)
শুষ্ক কাগজ (Dry Paper)
প্যারাফিন (Parafin)
পলিথিন (Polythin)
চীনামাটি (Porcelain)
রবার (Rubber)
সে্ললট পাথর (Slate Stone)
মার্বেল পাথর (Marbel Stone)
শুকনো কাঠ (Dry Wood)
বার্নিশ করা মিহি কাপড় (Vernished Cloth)

খ) বিদ্যুৎ পরিবহনে তামার তার ব্যবহারের কারণ কী?

ঊত্তরঃ

তামা বিদ্যুৎ সুপরিবাহী, দামে সস্তা, সহজলভ্য, সহজে কাটা যায় কিংবা জোড়া দেওয়া যায়। অ্যালুমিনিয়ামও বিদ্যুত্ সুপরিবাহী কিন্তু তাতে অ্যালুমিনিয়াম অক্সাইড তৈরি হয়, যা পরবর্তী সময়ে বিদ্যুত্ প্রবাহে বাধা দেয়। রুপাও বিদ্যুত্ সুপরিবাহী, কিন্তু অনেক দামি। স্টিল অনেক শক্তিশালী কিন্তু এর বিদ্যুত্ পরিবাহিতা কম। তাই সব দিক থেকে বিচার করলে বৈদ্যুতিক তারে তামার ব্যবহারই সবচেয়ে সুবিধাজনক

বিদ্যুৎ পরিবহনে তামার তার ব্যবহারের কারণ নিচে দেওয়া হলোঃ
তামা এক বিশেষ তামাটে লাল রঙের উজ্জ্বল ও চকচকে ধাতব পদার্থ এরা সহজে আলো প্রতিফলিত করতে পারে এবং তাপ ও বিদ্যুৎ পরিবহন ক্ষমতা খুবই বেশি। আর তামার মধ্য দিয়ে বিদ্যুৎ অতি সহজে এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে পৌঁছাতে পারে তাছাড়া তামা সুপরিবাহী পদার্থ হয় বেশি সময় ধরে বিদ্যুৎ প্রবাহের ধর্ম অক্ষুন্ন রাখতে পারে তাই বৈদ্যুতিক তারে তামা ব্যবহার করা হয়

গ) উদ্দীপকের ১ম চিত্রে মােম গলে পড়ার পরবর্তী অবস্থা ব্যাখ্যা কর।

ঘ) চিত্রের পদার্থ দুটির গলনাংক ও হিমাংক কি একই? পাঠ্যপুস্তকের আলােকে বিশ্লেষণ কর।

ঊত্তরঃ

“চিত্রের পদার্থ দুটির গলনাংক ও হিমাংক একই কিনা।
বিশ্লেষণঃ– ৫৭ ডিগ্রী সেলসিয়াসই হলাে মােমের হিমাংক। কেননা ৫৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রায় মােম জ্বলতে শুরু করে। আবার মােমের গলনাংকও হয় ৫৭। ডিগ্রী তাপমাত্রায়। অথ্যাৎ একই বস্তুর গলনাংক এবং হিমাংক একই৷ কিন্তু পানির হিমাংক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস। তাহলে পানির গলনাংকও কিন্তু শূন্য ডিগ্রী সেলিসিয়াস। কোন একটি বস্তুর তাপমাত্রা যদি হিমাংকের উপরে থাকে এবং তা পরিপার্শ্বিক তাপমাত্রার চেয়ে বেশি হয়, তবে পারিপার্শ্বিক তাপমাত্রায় বস্তুটিকে রেখে দিলে তা ধীরে ধীরে তাপ হারাতে থাকে। ফলে এর তাপমাত্রা কমতে থাকে। এবং তাপমাত্রা যখন হিমাংক চলে আসে তখন এটি কঠিনে পরিণত হয়।

3rd Week Assignment Syllabus and Answer 2020

        Download your 4th-week Syllabus Assignment PDF

  Class 6 Science Question Answer 4th-week 2020:

ক) বিদ্যুৎ পরিবাহী ও অপরিবাহী পদার্থের নাম লিখ।

খ) বিদ্যুৎ পরিবহনে তামার তার ব্যবহারের কারন কী?

গ) উদ্দীপকের ১ম চিত্রে মোম গলে পড়ার পরবর্তী অবস্থা ব্যাখ্যা কর।

ঘ) চিত্রের পদার্থ দুটির গলনাংক ও হিমাংক কি একই? পাঠ্যপুস্তকের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

প্রতিবেদনে যা যা থাকবে-
ভুমিকা
টেকসই উন্নয়ন কি
টেকসই উন্নয়নের অন্তরায় আচরণসমূহ
পরিবারের সদস্যদের আচরণ
ব্যক্তিগত মতামত- উপসংহার

Read more:

Abul Kalam

Hi, I'm Abul Kalam Azad. Now I'm working on a Private Bank in Bangladesh. In this website, I shall publish content on Finance Category. you can also know about the Banking system from our website. Anyone can know about Banking System in Bangladesh, Core Banking Review, Credit Card, Debit Card information, Agent Banking, and Mobile Banking Information from my content.

Related Articles

Back to top button
Close