উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, বিরতি স্টেশন ও ভাড়া তালিকা ২০২৩

১৯৮৬ সালের ১৭ ই জানুয়ারি সর্বপ্রথম উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি উদ্ভাবন করা হয়ে থাকে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি একটি আন্তঃনগর ট্রেন। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি একটি বিলাসবহুল ট্রেন। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি নোয়াখালী থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে নোয়াখালী যাতায়াত করে থাকে। সুপ্রিয় পাঠক পাঠিকা আপনি কি নোয়াখালী থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে নোয়াখালী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে ভ্রমণ করতে ইচ্ছুক? আপনি যদি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে নোয়াখালী থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে নোয়াখালী ভ্রমণ করতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, ভাড়ার তালিকা, বিরতি স্টেশন এবং সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে হবে।

ট্রেনে ভ্রমণের অনেক সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। অনেকেই ট্রেনের মাধ্যমে ভ্রমণ করতে পছন্দ করেন তারা নোয়াখালী থেকে ঢাকা ট্রেনের মাধ্যমে ভ্রমণ করতে পারবেন খুব সহজেই। ট্রেনে ভ্রমণে কোন ঝামেলা নেই। আপনি খুব সহজে ট্রেনের মাধ্যমে কোন ঝামেলা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারবেন। ট্রেনের মাধ্যমে আপনি খুব বিলাসবহুল ভাবে যাতায়াত করতে পারবেন। অনেকেই আছেন অনলাইনের মাধ্যমে টিকেট বুকিং করে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে চান তারা অনলাইনের মাধ্যমে টিকিট বুকিং করে খুব সহজে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে পারবেন।

অন্যান্য যানবাহনে তুলনায় ট্রেনে যাতায়াত করতে কোন জ্যামে পড়তে হয় না তাই অতি সহজেই খুব দ্রুত নিজ গন্তব্যস্থলে ট্রেনের মাধ্যমে পৌঁছানো যায়। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি দেখতে অত্যান্ত ঝকঝকে এবং পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের খাবারের জন্য আসন রয়েছে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য নিচে আলোচনা করা হলো।

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের যোগাযোগ ঠিকানা ২০২৩

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের যাতায়াতের ক্ষেত্রে আপনার যেকোন সমস্যায় এবং কি অনলাইনে টিকিট বুকিং দেওয়ার সময় উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের যোগাযোগ ঠিকানা সম্পর্কে জানতে হবে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের যোগাযোগ ঠিকানা জেনে আপনাকে অনলাইনের মাধ্যমে টিকেট বুকিং করতে হবে। এছাড়াও আপনার যাতায়াতের ক্ষেত্রে যে কোন প্রয়োজনে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের যোগাযোগ ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারবেন।

ঢাকা কমলাপুর রেলস্টেশন

মোবাইল নাম্বার :৯৩৩১৮২২, ৯৩৫৮৬৩৪

ফোন নাম্বার :০১৭১১৬৯১৬১২

বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন

ফোন নাম্বার :৮৯২৮২৩৯

ওয়েবসাইট :railway.gov.bd

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩

ট্রেনে ভ্রমণ করা খুবই সহজ। আপনি যদি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে জানতে হবে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণের ক্ষেত্রে আপনি যদি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের নির্দিষ্ট সময়সূচী না জানেন তাহলে আপনি ঠিক সময়মতো ট্রেনে ভ্রমণ করতে পারবেন না। আপনার ট্রেন ভ্রমণ মিস হয়ে যাবে। তাই আপনার ট্রেনে ভ্রমণ যাতে মিস না হয় এবং সুন্দরভাবে নিজ গন্তব্যস্থলে খুব সহজে পৌঁছে যেতে পারেন তাই আমাদের আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আপনার ভ্রমণকে খুব সুন্দর ও সহজ করে দেওয়ার জন্য উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী উল্লেখ করা হলো।

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের প্রতি সপ্তাহে দুই দিন বন্ধ থাকে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি নোয়াখালী থেকে ঢাকা কমলাপুর রেল স্টেশনের দিকে যাত্রা শুরু করে সকাল ৬ টা সময় এবং ঢাকা কমলাপুর রেলস্টেশনে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি নোয়াখালী থেকে পৌঁছায় ১১ টা ৪৫ মিনিটে। অপরদিকে ঢাকা কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি নোয়াখালী দিকে যাত্রা শুরু করে ১৫ টা ২০ মিনিটে। নোয়াখালী রেল স্টেশনে এসে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি পৌঁছায় ২১ টা ২৫ মিনিটে।

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা ২০২৩

সুপ্রিয় পাঠক পাঠিকা, আপনি কি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা জানার জন্য অনুসন্ধান করছেন? আপনি যদি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে এসে থাকেন তাহলে আমারে আজকে এই পোস্টটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আপনি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে খুব সহজে উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে পারবেন। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে আপনি সাতটি আসনের মাধ্যমে ভ্রমণ করতে পারবেন। শোভন, ফার্স্ট সিট, ফার্স্ট বার্থ, শোভন চেয়ার, স্নিগ্ধা, এসি, এসি বার্থ ইত্যাদি আসনগুলোর মাধ্যমে আপনি ভ্রমণ করতে পারবেন।

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ২০২৩

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের যাতায়াতকারী যাত্রীদের সুবিধার্থে বিভিন্ন স্টেশনে বিরতি দিয়ে থাকে। আপনি যদি উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে যাতায়াতকারী যাত্রী হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন সম্পর্কে অবগত হতে হবে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে যারা যাতায়াত করে তাদের জন্য উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন সম্পর্কে সকল তথ্য জানতে হবে।

উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটির ঢাকা থেকে যাত্রা করার সময় ঢাকা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন, নরসিংদী রেলওয়ে স্টেশন, আশুগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, আখাউড়া জংশন, কসবা, কুমিল্লা, লাকসাম জংশন, নাথেরপেটুয়া, সোনাইমুড়ী, বজরা, চৌমুহনী মাইজদী কোর্ট এটাতে বিরতি স্টেশনে বিরতি দিয়ে থাকে। উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে ঢাকা থেকে নোয়াখালী যাবার পথে আপনাকে নিম্নোক্ত স্টেশনে বিরতি দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *