আন্তর্জাতিক নারী দিবস কবে ২০২৩? আন্তর্জাতিক নারী দিবসের গুরুত্ব, তাৎপর্য ও ইতিহাস ২০২৩

সম্মানিত পাঠক পাঠিকা, আজকের পোস্টটির মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন আন্তর্জাতিক নারী দিবস কবে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের গুরুত্ব তাৎপর্য ও ইতিহাস সম্পর্কে। প্রতিবছর ৮ ই মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করা হয়ে থাকে। আন্তর্জাতিক নারী দিবস এর মাধ্যমে প্রতিটি নারীকে সম্মান জানানো হয়ে থাকে। বাংলাদেশের নারী দিবসের মাধ্যমে নারীদের ক্ষমতায়ন, নারী অধিকার উন্নয়ন এবং নারীদের গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করা হয়। বর্তমান সময়ে নারীরা পুরুষের দিক থেকে সমান সমান অধিকার ভোগ করছে। প্রতিবছর বাংলাদেশে নারী দিবসের এই দিনটিতে নারীদেরকে সম্মাননা পুরস্কার হয়ে থাকে। প্রতিবছর নারী দিবসে শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি তার প্রতি পাঁচজন নারীর হাতে সম্মাননা পুরস্কার দিয়ে থাকেন। আর কথা না বাড়িয়ে তাহলে নারী দিবসের মূল আলোচনায় যাওয়া যাক।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস কবে ২০২৩

১৯৭১ সাল থেকে জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক নারী দিবস ৮ ই মার্চ পালন করা হয়ে থাকে। ১৯১০ সালের মার্চ মাসে নিউ ইয়র্কে নারীদের সেলাই কারখানায় নারীরা নারীদের সম্মান আদায় করতে এক বিশাল আন্দোলন করেন। সেই আন্দোলনের পর থেকেই নারী শ্রমিকদের সম্মান জানিয়ে প্রতিবছর ৮ ই মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করা হয়ে থাকে।

আন্তর্জাতিক নারী দিবসের গুরুত্ব ২০২৩

আজকে আমরা আলোচনা করব আন্তর্জাতিক নারী দিবসের গুরুত্ব নিয়ে। সারা বিশ্বজুড়ে নারীদের জন্য আন্তর্জাতিক নারী দিবস ৭ ই মার্চ উদযাপন করা হয়ে থাকে। প্রত্যেকটি নারীদের জন্য আন্তর্জাতিক নারী দিবসের এই দিনটি অত্যন্ত আনন্দের। আন্তর্জাতিক নারী দিবসের এ দিনটিকে সারা বিশ্বের নারীদের সাফল্য, শ্রম, অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক হিসাবের দিক দিয়ে বিবেচনা করা হয়। নারীদের কর্মসংস্থান নিয়ে আলোচনা করা হয়। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন রকমের বক্তব্য পেশ করেন। সারা বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক নারী দিবস নারীদের সম্মান আনার জন্য উদযাপন করা হয়।

আন্তর্জাতিক নারী দিবসের ইতিহাস ২০২৩

আমেরিকার নিউইয়র্ক এর নারীদের সম্মান আদায়ের জন্য ১৯০৮ সালে সর্বপ্রথম নারীরা ধর্মঘট শুরু করে। তার পর সারা বিশ্বের মধ্যে সর্বপ্রথম আমেরিকায় ১৯০৯ সালে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন করা হয়। তারপর জাপান, অস্ট্রেলিয়া, ডেনমার্ক, ইন্দোনেশিয়া, সুইজারল্যান্ড ১৯১০ সালে আন্তর্জাতিক নারী দিবস এর ঘোষণা দেওয়া হয়। নারীদের অধিকার আদায়ের জন্য মূলত নারী দিবস পালন করা হয়ে থাকে। এক সময় নারীরা অনেক পিছিয়ে ছিল। বর্তমান সময়ে নারীরা পুরুষের সমান সমান পরিশ্রম করে তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা দিয়ে অনেকটাই এগিয়ে আছে ।

তাই আন্তর্জাতিক নারী দিবসের এই দিনটিতে প্রতিটি নারীর উপর রইল শ্রদ্ধা এবং সম্মান। ৮ ই মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস এর মধ্য দিয়ে প্রতিটি নারীর ভবিষ্যৎ সুন্দর এবং সাফল্যে ভরে উঠুক এই কামনা করে আজকের মত এখানেই বিদায় নিচ্ছি। আবারো জানাই সবাইকে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের শুভেচ্ছা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *